১১ অগাস্ট ২০২০, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

রাজনীতি
করোনা মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ : ফখরুল
tea

ইউএস-বাংলা ডেস্কঃ করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সরকারের সমোলোচনা করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে বলেই তারা একেক সময়ে একেক তুঘলকি সিদ্ধান্ত নিচ্ছে।’

সোমবার সকালে রাজধানীতে দুঃস্থ ও কর্মহীন মানুষের মধ্যে রমজান উপলক্ষে উপহার সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধনকালে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে, মানুষের মধ্যে আশার সৃষ্টির করার ক্ষেত্রেও ব্যর্থ হয়েছে। তারা আজকে তারা একেক সময় একেকটা তুঘলকি সিদ্ধান্ত নেয়। কিছুদিন আগে সিদ্ধান্ত নিলো যে, গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। বন্ধ করল কিন্তু দুইদিন পরে গণপরিবহন খোলা রাখল। ফলে সব কিন্তু গ্রামের মধ্যে দেশের মধ্যে সারা জায়গায় ছড়িয়ে পড়ল। এই বিষয়গুলো আজকে আপনার সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

‘আবার আজকে গার্মেন্টস খুলেছে, কিন্তু গার্মেন্টস কর্মীদের যে নিরাপত্তা সেই নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেই। গার্মেন্টস কর্মীদের এখন আবার অনেকেই আক্রান্ত হওয়া শুরু হয়েছে ঢাকার সাভারে, আসুলিয়ায়, গাজীপুরে নারায়নগঞ্জে। অর্থাৎ সরকার ব্যর্থ হয়েছে গার্মেন্টস মালিকদেরকে তাদের শ্রমিকদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা গ্রহণ করার ক্ষেত্রে’, বলেন তিনি।

গুলশানের নিজের বাসায় কোয়ারেন্টিনে থাকা অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জনগণকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন উল্লেখ করে মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ, তিনি বাসাতেই আছেন। তিনি বেরুতে পারছেন না। কারণ তাকেও কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। তিনি আপনাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এবং আল্লাহ তাআলার কাছে দোয়া করেছেন যে, এই দুর্যোগ থেকে আমাদের সবাইকে রক্ষা করেন।’

সময় সাংবাদিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত এবং তাদের চাকরির নিশ্চয়তা বিধান এবং হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্স-স্বাস্থ্যকর্মী ও শিল্পকারখানার শ্রমিকদের চাকরিচ্যুত না করাও দাবি জানান ফখরুল।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, ‘দুঃখজনক ব্যাপার হচ্ছে, পৃথিবীর অন্যান্য দেশ যখন লকডাউন ঘোষণা করেছে তখন এরা (সরকার) কিন্তু লকডাউন ঘোষণা করেনি, স্থানীয়ভাবে লকডাউন দিচ্ছে কিন্তু রাষ্ট্রীয়ভাবে জাতীয়ভাবে কোনো লকডাউন ঘোষণা করা হয়নি। যার ফলে মানুষ এটার গুরুত্ব সেভাবে উপলব্ধি করতে পারেনি।’

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন—বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান, মহানগর উত্তর যুবদলের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর, বিমান বন্দর থানা বিএনপির জুলহাস মোল্লা, মুনির ভুঁইয়া, পূর্ব বিমান বন্দর থানার এস আই টুটুল, স্থানীয় কমিশনার আলী আকবর প্রমুখ।

সুত্রঃ আমাদের সময়

সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img