২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৩৭ অপরাহ্ন

সিলেট প্রতিক্ষণ
সিলেটে পেঁয়াজের ঝাঁজের সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে চালের দাম
tea

মো.শাফী চৌধুরী

বাজারে পেঁয়াজের ঝাঁজের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে চালের দাম। ক্রমশ অস্থির হয়ে উঠছে পেঁয়াজ ও চালের বাজার। দুই সপ্তাহের ব্যবধানে পেয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ২৫ থেকে ৩০ টাকা অন্য দিকে চালের দাম বস্তাপ্রতি বেড়েছে ২শ থেকে তিনশো টাকা পর্যন্ত। নিত্য প্রয়োজনীয় এই দুই পণ্যের দাম উর্ধগতি হওয়ায় হিমশিম খাচ্ছেন ক্রেতারা। বিক্রেতারা বলছেন, হঠাৎ করে আড়তে দাম বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে তাদেরকেও বেশী দামে বিক্রি করতে হচ্ছে এসব পণ্য। এমন অবন্থায় বাজার করতে এসে অসহায় সাধারণ ক্রেতারা। 

রোববার সিলেট নগরীর কালিঘাট ও শেখঘাটসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা য়ায়, গত ২ সপ্তাহ থেকে পেয়াজের দাম উর্ধগতি। যাতে হিমশিম খাচ্ছেন সাধারন ক্রেতারা। গত মাসের শেষের দিকে পেঁয়াজের দাম ছিল ৩০ টাকা কেজি, এখন সেই পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫৫ থেকে ৬৫ টাকা টাকায়।  অর্থাৎ দুই সপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বেড়েছে ২৫ থেকে ৩০ টাকা পর্যন্ত। 

কালীঘাটের ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ করে জানা যায় , আগষ্টের শেষ সপ্তাহে ভালো মানের দেশি পেঁয়াজের কেজি ছিল ২৮ থেকে ৩০ টাকা। যা সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহ বেড়ে গিয়ে দাঁড়ায় ৪০ থেকে থেকে ৪২ টাকা। শনিবার সেই পেঁয়াজের দাম বেড়ে এখন ৫৫-৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে কালাম মিয়া নামের এক পাইকারী জানান, ভারতীয় পেয়াজের আমদানী কম ও দেশীয় পেয়াজের সংকট। তাছাড়া মূল আড়তে পেয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় সিলেটের ব্যবসায়ীরা পেঁয়াজ আমদানী করছেন কম।

 তাছাড়াও গত বছরের সেপ্টেম্বরে ভারত পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করলে দেশের বাজারে হু হু করে দাম বেড়ে পেঁয়াজের কেজি রেকর্ড ২৫০ টাকা পর্যন্ত উঠে। এ কারণেই অজানা শঙ্কায় ক্রেতারা বাড়তি পেঁয়াজ কিনেছেন। ক্রেতা ও বিক্রেতাদের কথাতে তেমন আভাসই পাওয়া গেছে সিলেটের বাজার ঘুরে।

পেঁয়াজের এমন ঝাঁজের মধ্যেই স্বস্তি নেই চালের বাজার। পেঁয়াজের সাথে পাল্লা দিয়ে গত ২ সপ্তাহের ব্যবধানে চাল বস্তাপ্রতি বেড়েছে ২শ থেকে তিনশো টাকা পর্যন্ত।সিলেটের পাইকারী বাজারে পর্যাপ্ত পরিমাণ চাল মজুদ থাকার পরও সব ধরনের চালের দাম বাড়তি। মিনিকেট, কাটারি চালের দাম বস্তা প্রতি বেড়েছে ৩০০ টাকা ।একই সাথে বেড়েছে মালা, আশুগঞ্জি মালা, মালা ৩২, নাজিরশাইসহ সব ধরনের চালের দাম। বাজারে মালা ও আশুগঞ্জি মালা , মালা ৩২  এসব চালের দাম বস্তাপ্রতি বেড়েছে ২শ টাকা। পাইকারী বাজারে বস্তাপ্রতি চালের দাম ২শ থেকে তিনশো টাকার প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। খুচরা বাজারে সব ধরনের চালের দাম প্রতি কেজিতে বেড়েছে ৫ থেকে ৬ টাকা । ৫০ টাকার নিচে চাল পাওয়ায় কঠিন হওয়ায় বড় বিপাকে পড়েছে সীমিত ও নিম্নমধ্যবিত্ত আয়ের মানুষের। 

সিলেটের চালের পাইকারী ব্যবসায়ীদের সাথে আলাপ করে জানা যায়,এ বছর দেশে পর্যাপ্ত পরিমানে ধান উৎপাদন হয়েছে। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক ধান উৎপাদন হওয়ার ফলে কি কারণে হঠাৎ করে যে চালের দামের উর্ধগতি তা তারা নিজেরাই আঁচ করতে পারছেন না। তারা বলছেন গত ২/৩ মাস থেকে প্রতি বস্তায় ৫০-৬০ টাকা কওে বাড়লেও গত ১৫ ব্যবধানে চালের দাম বেড়েছে বস্তাপ্রতি ২০০ থেকে ৩০০ টাকা। আর তারা বেশী দামে আশুগঞ্জ ও উত্তরবঙ্গ থেকে চাল ক্রয় করছেন বলে তারাও বস্তাপ্রতি দাম বাড়াতে বাধ্য হচ্ছেন। 

এদিকে ক্রেতারা বলছেন, বাজারে মনিটরিং না থাকায় ব্যবসায়ীরা তাদের নিজেদের মত করে পেয়াজ ও চালের দাম বাড়িয়ে চলছে। এতে করে মধ্যবিত্ত ও নি¤œবিত্তদের ক্রয় সীমার বাইরে চলে যাচ্ছে এই দুই নিত্যপণ্য। চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসন দ্রুত কার্য কর পদক্ষেপ নেবে এমন দাবি ভোক্তাদের। একইসঙ্গে নিয়মিত বাজার মনিটরিং এর দাবি তাদের।

সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img