২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৩ পূর্বাহ্ন

খেলাধুলা
মেসির জন্য ‘নতুন আলভেস’ দৌড়াবেন শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত
tea

ইউএস-বাংলা ডেস্কঃ সেই ২০১৬ সালে দানি আলভেস চলে যাওয়ার পর থেকে বার্সেলোনা এমন কোনো রাইটব্যাক পায়নি, যার ওপর চোখ বন্ধ করে নির্ভর করা যায়। ডানদিকে মেসির সঙ্গে আলভেসের বোঝাপড়াটা ছিল অন্য পর্যায়ের। চোখ বন্ধ করেও যেন আলভেস বুঝতে পারতেন মেসির গতিবিধি কেমন হতে চলেছে, একই কথা প্রযোজ্য ছিল মেসির ক্ষেত্রেও।

আলভেস যাওয়ার পর থেকে ডগলাস, সের্হি রবের্তো কিংবা নেলসন সেমেদো—বার্সার রাইটব্যাক হয়ে যারা খেলেছেন, মেসির সঙ্গে আলভেসের মতো কার্যকরী জুটি গড়তে পারেননি।

এবার বার্সায় এসেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাইটব্যাক সের্হিনিও দেস্ত। আলভেস যা করে গিয়েছিলেন, তেমন কিছু করতে পারবেন দেস্ত? এরই মধ্যে ‘নতুন আলভেস’ নামে ডাকা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত দেস্ত তেমন হতে পারবেন কি না, মাঠে খেলা না দেখে সেটা নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে তাই বলে দেস্তের উৎসাহের কমতি নেই মোটেও। ১৯ বছর বয়সী রাইটব্যাক এসেই জানিয়ে দিলেন, মেসির জন্য নিজের সর্বস্বটুকু নিংড়ে দিতে প্রস্তুত।

‘আমি এই ক্লাবে এসেছি বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের সঙ্গে খেলার জন্য। প্রথমে আমি নিজের খেলায় উন্নতি আনতে চাই। ভালো খেলতে চাই, সম্ভাব্য সবকিছু জিততে চাই। আর মেসির জন্য আমি আমার ফুসফুসের শেষ নিশ্বাস পর্যন্ত দৌড়াতে রাজি, সেটা করব প্রতিটা ম্যাচেই’—বার্সেলোনার হয়ে অনুশীলনের পর বলেছেন দেস্ত।

দেস্তের স্বপ্ন, বার্সায় দানি আলভেসকে অনুকরণ করবেন। মেসির সঙ্গে আলভেসের যেমন দারুণ সমন্বয় ছিল, তেমন কিছু গড়ে তুলবেন। আলভেস যত দিন বার্সায় ছিলেন, মেসির জন্য সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৪৩টি গোল বানিয়ে দিয়ে গেছেন। যা জাভি, ইনিয়েস্তা, সুয়ারেজ বা নেইমারের চেয়েও বেশি ছিল তখন। আলভেস যাওয়ার পর অবশ্য ইনিয়েস্তা আর সুয়ারেজ ‘মেসির জন্য গোল বানানো’র সেই তালিকায় আলভেজকে ছাড়িয়ে গেছেন।

জাভি, ইনিয়েস্তা দুজনই ছিলেন মিডফিল্ডার, ওদিকে সুয়ারেজ-নেইমার আক্রমণভাগের খেলোয়াড়। সেখানে আলভেস রাইটব্যাক হয়েও মেসির জন্য গোল বানানোর খেলায় ছাড়িয়ে গিয়েছিলেন সবাইকে। দেস্ত কী অমন কিছু পারবেন?

দেস্ত নিজে যথেষ্ট আশাবাদী সে ব্যাপারে। এর মধ্যে আলভেসের ভিডিও দেখে দেখে অনেক কিছু শিখছেন তিনি, ‘দানি আলভেস এমন একজন, যাঁর খেলা দেখে অনেক কিছু শেখা যায়। আমি ইউটিউবে আলভেসের অনেক ভিডিও দেখেছি। অনেক কিছু শিখেছি। আমাকে এখনো অনেক কিছু জিততে হবে, শিখতে হবে। এখানে আলভেসের অনেক সাবেক সতীর্থ আছে, যাঁদের কাছ থেকে আমি অনেক কিছু শিখতে পারব। এঁদের মধ্যে মেসি একজন।’

দেস্তের মধ্যে আগামী কয়েক বছরের রাইটব্যাক সমস্যার সমাধান দেখছে বার্সা। সে কারণেই তো বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে রীতিমতো যুদ্ধ করে তরুণ এই রাইটব্যাককে নিয়ে এসেছে। দেস্ত নিজেও অবশ্য সব সময় বার্সাতেই আসতে চেয়েছেন। আয়াক্স থেকে তাঁকে আনতে বার্সার খরচ হয়েছে ২১ মিলিয়ন বা ২ কোটি ১০ লাখ ইউরো।

সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img