২২ অক্টোবর ২০২০, ১১:১৭ অপরাহ্ন

আন্তর্জাতিক
রাশিয়ার টিকা নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ: উপপ্রধানমন্ত্রী
tea

ইউএস-বাংলা ডেস্কঃ রাশিয়ার স্পুটনিক-ভি টিকাটি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে কার্যকারিতা দেখিয়েছে। এ ছাড়া এটি নির্ভরযোগ্য ও নিরাপদ বলেও প্রমাণিত হয়েছে বলে দাবি করেছেন রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি চের্নিশেঙ্কো। গতকাল শনিবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত ‘সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইন সোসাইটি ফোরাম’–এর এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম তাসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ফোরামে চের্নিশেঙ্কো বলেন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইতিমধ্যে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের ভাষণে বৈশ্বিক করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে রাশিয়ার টিকার অভিজ্ঞতা সবার সঙ্গে বিনিময়ের কথা বলেছেন। রাশিয়ার উপপ্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘নিঃশর্তভাবে প্রেসিডেন্ট বিশ্বের বিভিন্ন দেশে স্পুটনিক-ভি টিকা সরবরাহের বিষয়টি উল্লেখ করেছেন। টিকাটি ইতিমধ্যে নির্ভরযোগ্য, নিরাপদ ও কার্যকর বলে প্রমাণ হয়েছে।’

গত ১১ আগস্ট রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তাদের প্রথম এ টিকা অনুমোদন দেয়। বিশ্বে করোনার প্রথম টিকা অনুমোদনের ঘটনা ছিল এটি।

চের্নিশেঙ্কো আশা প্রকাশ করেন, বিশ্বের বৈজ্ঞানিক প্রতিষ্ঠানগুলো তাঁদের প্রচেষ্টায় যোগ দিলে মহামারির বিরুদ্ধে মানবতার লড়াই জোরদার হবে। আন্তর্জাতিক সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইন সোসাইটি ফোরামের বার্ষিক অনুষ্ঠানে বিশ্বের ১৫০টি দেশ থেকে কয়েক শ বিজ্ঞানী, ব্যবসায়িক ও রাজনৈতিক নেতারা অংশ নেন।

গামেলিয়া ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার ও রাশিয়ান ডিরেক্ট ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের তৈরি স্পুটনিক-ভি নামের টিকাটি নিয়ে পরীক্ষা চালাচ্ছে রাশিয়া।

রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে জানানো হয়, করোনা প্রতিরোধে গাম-কোভিড-ভ্যাক বা স্পুটনিক-৫ নামের প্রথম ব্যাচের টিকাটির প্রয়োজনীয় সব গুণগত পরীক্ষা অনুমোদন করা হয়েছে।

গত ১১ আগস্ট রাশিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় তাদের প্রথম এ টিকা অনুমোদন দেয়। বিশ্বে করোনার প্রথম টিকা অনুমোদনের ঘটনা ছিল এটি।

রাশিয়ার টিকা গত আগস্টে অনুমোদনের পর থেকে তা নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। দ্রুতগতিতে এ টিকা অনুমোদন দেওয়া নিয়ে পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোয় এর কার্যকারিতা নিয়ে নানা প্রশ্ন তোলা হয়েছে।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, তাঁদের টিকাটি প্রয়োজনীয় সব পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে গেছে। তাঁর এক মেয়েও এ টিকা নিয়েছিলেন। পরে ওই মেয়ের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হতে দেখা গেছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্পুটনিক-৫ টিকাটি ছাড়াও রাশিয়ার আরেকটি সম্ভাব্য টিকা পরীক্ষায় তৃতীয় ধাপে পৌঁছেছে। সার্বিয়া ভেক্টর ইনস্টিটিউটের তৈরি টিকাটি নভেম্বর-ডিসেম্বরে ট্রায়াল শুরু হবে। গত বুধবার ওই টিকার প্রাথমিক ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল সম্পন্ন হয়েছে। 
 রয়টার্সের পৃথক আরেকটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দেশটির রাষ্ট্রীয় দুটি গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের স্পুটনিক-ভি টিকাটি দেওয়া হয়েছে। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের বাইরে দেশটিতে প্রথম টিকা পাচ্ছেন সাংবাদিকেরা। গত মাসে ঝুঁকিপূর্ণ চাকরিগুলোর একটি তালিকা প্রকাশ করে দেশটি। সে তালিকায় স্বাস্থ্যকর্মী, সাংবাদিক ও শিক্ষকেরা রয়েছেন।

সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img