২৯ অক্টোবর ২০২০, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন

হবিগঞ্জ
মাস্ক কি শুধু দিনমজুরদের জন্য?
tea
নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি: নবীগঞ্জে সাধারণ মানুষের সাথে উপজেলা প্রশাসনের বৈষম্যমূলক কার্যক্রম লক্ষ করা গেছে।

এনিয়ে নবীগঞ্জ উপজেলাজুড়ে তুমুল সমালোচনার ঝড় বইছে। উপজেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্তের লোক দেখানো কার্যক্রম থাকলে ও তাতে সাধারণ মানুষের সাথে বৈষম্যমূলক আচরণ লক্ষণীয় বলছেন সচেতন মহল।

সম্প্রতি মহামারি করোনাভাইরাসের কারনে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার জন্য বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধানের কথা বলছে সরকার। সে অনুযায়ী মাঠ পর্যায়ে কাজও করছে সরকারের বিভিন্নস্থরের লোকজন।

এদিকে অক্টোবর মাস থেকে নবীগঞ্জ উপজেলায় লোক দেখানো অভিযান পরিচালনা করা হলেও শুধু সাধারণ মানুষকেই মাস্ক পরিধান না করে চলায় জরিমানা করছে প্রশাসন রয়েছে এমন বিস্তর অভিযোগ।

তবে উচ্চপর্যায়ের জনপ্রতিনিধিদের বেলায় কোনো আইন নেই। তাদের মাস্ক ও লাগে জরিমানা ও লাগে না! এ কেমন নীতি? করোনা কি শুধু খেটে খাওয়া দিনমজুরদের?

প্রশ্ন তুলছেন সাধারণ মানুষ। গত (৯ অক্টোবর) নবীগঞ্জ উপজেলা হল রুমে যানজট নিরসন,যাত্রী সেবা বৃদ্ধি ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় অটোরিক্সা, সিএনজি, বাস মালিক সমিতির প্রতিনিধিদের নিয়ে আলোচনা সভায় নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, ভাইস চেয়ারম্যান গতি গবিন্দ, পৌরসভার মেয়র ছাবির আহমেদসহ আলোচনা সভার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপলোড করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহি উদ্দিন। ছবিতে উচ্চ পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, পৌরসভার মেয়র তাদের কারো মুখেই মাস্ক ছিল না।

এমন কি এই মিটিংয়ে সবাই মোবাইল ফোন নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন, ছবিতে এমনটাই দেখা যায়। এই মিটিংয়ে প্রায় ১২ টি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। তার মধ্যে সরকারের উল্লেখযোগ্য সিদ্ধান্ত মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক।

অন্যতায় শাস্তির আওতায় আনার কথা ও বলা হয়। যারা সিদ্ধান্ত  নিলেন তারাই মানলেন না! তাদের ওপর কি জরিমানা হবে?

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহি উদ্দিন বলেন, হয়তো চা বা পানি খাওয়ার সময় তারা অসর্তকতা থাকার কারনে এমনটা হতে পারে।
সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img