২৭ নভেম্বর ২০২০, ০৮:৩১ অপরাহ্ন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
রায়হানের হত্যাকারীদের বিচারের দাবী টুকের বাজার এসোসিয়েশন অব ইউএসএর
tea

ইউএস-বাংলা ডেস্কঃ সিলেট পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে নিহত রায়হান উদ্দিনের হত্যায় জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী জানিয়েছেন প্রবাসী সংগঠন বৃহত্তর টুকের এসোসিয়েশন অব ইউএসএ। 

গত মঙ্গলবার  নিউইয়র্কের ব্রকন্সে এক আলোচনা সভায়  সংগঠনের সদস্যবৃন্দ এ দাবী জানান। 

সংগঠনের আহবায়ক ফারুক আহমদ জাানান, আমরা যারা প্রবাসে বসবাস করি পূণ্যভূমি সিলেটের  এ রকম নৃশংস্য ও অমানবিক ঘটনা দেখে অত্যন্ত  মর্মাহত। এ ঘটনা আমাদের সিলেটী প্রবাসীদের জন্য জন্য লজ্জা, অপমানের। এসময় আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক ইব্রাহীম আলী, যুগ্ম আহবায়ক আরিফ আহমদ। 

উক্ত অনুষ্টানে আরও উপস্থিত ছিলেন আব্দুস শহীদ, জয়নাল আবেদীন রানা, মো. সৌরভ আরেফিন, ময়নুল আবেদিন হীরা, মোহাম্মদ আলম,  রুবেল আহমদ, সাহিম আহমদ, তাফসির আহমদ প্রমুখ। 

এছাড়া রায়হান হত্যার প্রতিবাদে ১৪  অক্টোবর বুধবার বিকাল ৩ টার নিউইয়র্কের ওজনপার্ক প্লাজায় এক বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে নিউইয়র্কে বসবাসরত সর্বস্তরের জনসাধারণ অংশগ্রহণ করেন। বক্তারা দল মত নির্বিশেষে হত্যাকারি এসআই আকবর সহ যারা এই ন্যাক্ক্যার জনক কাজে জড়িত ছিল তাদেরকে অনতিবিলম্বে আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানান। একই সাথে বিক্ষুদ্ধ জনতা ন্যায্য ও দ্রুত বিচারের দাবিতে বাংলাদেশ সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য একটি পিটিশন স্বাক্ষর কর্মসূচির আয়োজন করেন।

প্রসঙ্গত, গত ১১ অক্টোবর রোববার ভোরে রায়হান আহমদ (৩৩) নামে সিলেট নগরের আখালিয়ার এক যুবক নিহত হন। পুলিশের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, ছিনতাইয়ের দায়ে নগরের কাষ্টঘর এলাকায় গণপিটুনিতে নিহত হন রায়হান। তবে কাষ্টঘর এলাকার সিসিটিভি ফুটেজে গণপিটুনির কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সেখান থেকে পুলিশ কাউকে ধরে নিয়ে আসারও প্রমাণ নেই সিসিটিভি ফুটেজে। রায়হান নগরের আখালিয়ার নেহারিপাড়া এলাকার মৃত রফিকুল ইসলামের ছেলে। তিনি স্টেডিয়াম মার্কেট এলাকায় এক চিকিৎসকের চেম্বারে সহকারি হিসেবে কাজ করতেন।

সম্পর্কিত খবর

একটি মন্তব্য করুন

সম্পর্কিত মন্তব্য

img
img
img